অচেনা নম্বর থেকে ফোন এলে এখন ‘ট্রু-কলার’ অ্যাপ-ই স্মার্টফোন ব্যবহারকারীদের একমাত্র ভরসা। অনেকক্ষেত্রে তো গ্রাহককে আলাদা করে ডাউনলোডও করতে হয় না এই অ্যাপ। ফোনের মধ্যেই সেট করা থাকে এই অ্যাপ্লিকেশন (ইনবিল্ড অ্যাপ)। এর সুবিধাও অনেক। অচেনা-অজানা নম্বর থেকে ফোন এলেও যিনি ফোন করছেন তাঁর নাম ভেসে উঠবে স্ক্রিনে। চটজলদি দেখে নেওয়া যাবে নম্বরটি কোথাকার।

তবে এই ‘ট্রু-কলার’ অ্যাপের বিরুদ্ধে এবার উঠল মারাত্মক অভিযোগ। প্রায় ৪ কোটি ৭৫ লক্ষ ভারতীয় ইউজারের ব্যক্তিগত তথ্য নাকি ৭৫ হাজার টাকায় (একজন ইউজার) বিক্রি করে দিয়েছে ট্রু-কলার কর্তৃপক্ষ। আর সেই তথ্য পাচার হচ্ছে ডার্ক ওয়েবে। একবিংশ শতকে প্রযুক্তিগত উন্নতির সবচেয়ে ভয়ানক দিক হল এই ডার্ক ওয়েব। আর সেখানেই নাকি ইউজারদের ব্যক্তিগত তথ্য বেচে দিচ্ছে ট্রু-কলার।

এমনই গুরুতর অভিযোগ তুলেছে ইন্টেলিজেন্স ফার্ম (গোয়েন্দা সংস্থা) সাইবেল। এই গোয়েন্দা সংস্থার অভিযোগ, ২০১৯ সাল থেকে ইউজারদের তথ্য বিক্রি শুরু করেছে ট্রু-কলারে। রাজ্য এবং শহরের ভিত্তিতে ভাগ করা হচ্ছে ব্যবহারকারীদের তথ্য। মূলত ইউজারদের নাম, লিঙ্গ, ফোন নম্বর, ইমেল আইডি, ফেসবুক আইডি ও আরও অনেক কিছুই বিক্রি হচ্ছে। গোয়েন্দা সংস্থা সাইবেলের অনুমান, বিভিন্ন প্রতারণামূলক কাজ, কারও আইডেন্টিটি চুরি এসব ক্ষেত্রে ব্যবহৃত হতে পারে এইসব তথ্য।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here